মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪

চোখে রক্ত চলাচল ব্যাহত হলে বাড়ে প্রেশার, নষ্ট হতে পারে দৃষ্টিশক্তি

মঙ্গলবার, মে ২৮, ২০২৪
চোখে রক্ত চলাচল ব্যাহত হলে বাড়ে প্রেশার, নষ্ট হতে পারে দৃষ্টিশক্তি

সময় জার্নাল ডেস্ক:

চোখ হলো শরীরের সবচেয়ে স্পর্শকাতর ইন্দ্রিয়। ঘুমের সময়টুকু বাদ দিলে দিনের বেশিভাগ সময়ে চোখ খোলা থাকে। বাতাসে মিশে থাকা ধুলা, ময়লা, জীবাণুর সাথে ঝলসানো গরম হাওয়ার আঁচ সরাসরি চোখে এসে লাগে।

সেখান থেকেই শুরু হয় ইনফ্লেমেশন অর্থাৎ প্রদাহ। চোখে স্বাভাবিক রক্ত চলাচল ব্যাহত হলে চোখের প্রেশার বেড়ে যায়। রেটিনা রক্তবর্ণ হয়ে ওঠে। স্ট্রোক কিন্তু একই সাথে দু’টি চোখে হয় না। তবে, রোগ নির্ণয়ে বা চিকিৎসায় গাফিলতি করলে দু’টি চোখেরই দৃষ্টিশক্তি নষ্ট হতে পারে।

তা ছাড়া চোখের সাথে মস্তিষ্কেরও সরাসরি যোগ রয়েছে। দীর্ঘ দিন ধরে রক্তচাপ বা শর্করা অনিয়ন্ত্রিত অবস্থায় থাকলেও কিন্তু তার প্রভাব চোখের উপর এসে পড়তে পারে। সেই সব কারণেও চোখে স্ট্রোক হয়।

আপাতভাবে চোখে কী কী লক্ষণ ফুটে উঠতে পারে?
১) চোখ লাল হয়ে ফুলে সমানে পানি পড়তে পারে।
২) রেটিনার উপর রক্তজালিকা ভেসে উঠতে পারে। কিছু ক্ষেত্রে রক্ত জমাট বাঁধতেও দেখা যায়।

৩) চোখে রক্ত সরবরাহ ব্যাহত হয়। ফলে অক্সিজেনের অভাব দেখা দেয়।

চোখে স্ট্রোক হওয়ার লক্ষণগুলি কী কী?
১) ফ্লোটার্‌স :
সাদা দেয়ালের দিকে তাকিয়ে থাকলেও মনে হতে পারে তার গায়ে যেন ধূসর ধূলিকণা ঘুরে বেড়াচ্ছে। চিকিৎসা বিজ্ঞানের ভাষায় যাকে ‘ফ্লোটার্‌স’ বলা হয়।

২) ঝাপসা দৃষ্টি :
চোখে স্ট্রোক হলে দৃষ্টি ঝাপসা হয়ে যেতে পারে। কারো ক্ষেত্রে চোখের নির্দিষ্ট একটি অংশ ঝাপসা হয়ে যেতে পারে। আবার কারো ক্ষেত্রে পুরো দৃষ্টিশক্তিই ঝাপসা হয়ে যায়। পরিস্থিতি জটিল হলে দৃষ্টিশক্তি হারানোর আশঙ্কাও থাকে।

৩) চোখের অতিরিক্ত চাপ :
বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই চোখে স্ট্রোক হলে তা রোগী বুঝতে পারেন না। কারণ চোখের মধ্যে বিশেষ কোনো কষ্ট বা যন্ত্রণা হয় না। তবে, চোখের উপর অতিরিক্ত চাপ সৃষ্টি হয়। একটু সচেতন থাকলে সেই অস্বস্তি টের পাওয়া যায়। অনেক সময়ে রক্তনালি ছিঁড়ে গিয়ে রেটিনা উপর তা ছড়িয়ে পড়ে। তাই চোখ রক্তবর্ণ হয়ে যায়।

চোখের স্ট্রোক প্রতিরোধ করা সম্ভব?
১. চোখ ভালো রাখতে বিভিন্ন ধরনের ভিটামিন এবং খনিজ সমৃদ্ধ বাদাম এবং বীজ খাওয়া প্রয়োজন। সাথে যদি কিশমিশ, শুকনো ডুমুর খাওয়া যায় তা হলে আরো ভালো।

২. দৈনন্দিন ডায়েটে বিটা-ক্যারোটিন যুক্ত খাবার যেমন গাজর, পালং শাক, ব্রকলি, মিষ্টি আলু, স্ট্রবেরি রাখা যেতে পারে। একান্ত না পারলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে ভিটামিন এ সাপ্লিমেন্ট খেতে হবে।

৩. চোখে সরাসরি রোদ লাগলেও সেখান থেকে ক্ষতি হতে পারে। তাই রোদ থেকে চোখ দুটি বাঁচিয়ে রাখতে রোদচশমা ব্যবহার করার পরামর্শও দেয়া হয়। তবে, সস্তার রোদচশমা পরলে আবার হিতে বিপরীত হতে পারে। তাই সে বিষয়েও সতর্ক থাকতে হবে।

৪. চোখকে পর্যাপ্ত বিশ্রাম দিতে হবে। দিনের যেটুকু সময়ে চোখ দু’টিকে কাজ না করালেই নয়, সেইটুকু সময় ছাড়া বাকি সময় চোখ বন্ধ করে রাখতে পারলেই ভালো। প্রয়োজনে চোখের হালকা কিছু ব্যায়াম করা যেতে পারে। বাজার থেকে ভালো মানের ‘আইমাস্ক’ কিনে মাখতে পারেন। না হলে ঘরোয়া টোটকা হিসেবে দিনের শেষে চোখের উপর দু’টুকরো শসা রাখলেও কাজ দেবে।

সময় জার্নাল/এলআর


Somoy Journal is new coming online based newspaper in Bangladesh. It's growing as a most reading and popular Bangladeshi and Bengali website in the world.

উপদেষ্টা সম্পাদক: প্রফেসর সৈয়দ আহসানুল আলম পারভেজ

যোগাযোগ:
এহসান টাওয়ার, লেন-১৬/১৭, পূর্বাচল রোড, উত্তর বাড্ডা, ঢাকা-১২১২, বাংলাদেশ
কর্পোরেট অফিস: ২২৯/ক, প্রগতি সরণি, কুড়িল, ঢাকা-১২২৯
ইমেইল: somoyjournal@gmail.com
নিউজরুম ই-মেইল : sjnewsdesk@gmail.com

কপিরাইট স্বত্ব ২০১৯-২০২৪ সময় জার্নাল