শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪

ডলার সংকটঃ চাপ পড়ছে রিজার্ভে

শনিবার, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০২৩
ডলার সংকটঃ চাপ পড়ছে রিজার্ভে

জামাল উদ্দীন:

দেশের অর্থনৈতিক পরিস্থিতি এখন নানা চ্যালেঞ্জের মধ্যে রয়েছে। এর মধ্যে অন্যতম চ্যালেঞ্জ বৈদেশিক মুদ্রা তথা ডলার। ডলারের চাহিদা কেবলই বাড়ছে। একই সংঘের দামও বাড়ছে। আন্তর্জাতিক বাজারে পণ্য মূল্য বৃদ্ধির কারণে আমদানি খাতে ডলারের ব্যয় বেড়েছে। পাশাপাশি টাকা পাচারের কারণেও ডলারের উপর চাপ পড়ছে বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। ফলশ্রুতিতে চাপ বাড়ছে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভের উপরও। আমাদের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ এখন অনেকটাই কম। যদিও আমাদের তিন মাসের আমদানি বা হিসাব করলে তা যথেষ্ট পরিমাণে রয়েছে। বিশেষজ্ঞরা বলেছেন ডলারের রিজার্ভ কে সুসংহত রাখতে হবে। কারণ দেশের অর্থনীতি যেভাবে এগিয়েছে ঠিক একে টেকসই করতে হলে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ শক্তিশালী অবস্থানে থাকতে হবে। 
সম্প্রতি ডলারের বাজার বিশ্লেষণ করলে দেখা যায় নানা কারণে ডলারের সংকট চাহিদা দুটোই বেড়েছে। সাধারণত অগাস্ট - সেপ্টেম্বর ইউরোপ এবং যুক্তরাষ্ট্রের শিক্ষার সেশন শুরু হয়। এ সময় নগদ ডলারের চাহিদা বাড়ে।  প্রতিবছরই এই সময়ে ডলারের চাহিদা বাড়ে। তবে এবারে ডলারের চাহিদা বাড়ার আরো একটি কারণ উল্লেখ করেছেন
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এর অর্থনীতি বিভাগের সাবেক অধ্যাপক ডক্টর মইনুল ইসলাম। তিনি বলেন, এই সময়ে ডলারের দাম বাড়ার কারণ হচ্ছে পুঁজি পাচার অস্বাভাবিক বেড়েছে। কেন্দ্রীয় ব্যাংক বাজারে ডলার বিক্রি করেও পরিস্থিতির স্বাভাবিক করতে পারছে না।
সর্বশেষ প্রাপ্ত হিসাব মতে বাংলাদেশ ব্যাংক এ পর্যন্ত প্রায় আড়াই বিলিয়ন ডলার ব্যাংকগুলোর কাছে বিক্রি করেছে।
কিন্তু অতিমাত্রায় বাংলাদেশ ব্যাংক যদি বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর কাছে ডলার বিক্রি করে, তখন রিজার্ভের উপর ও চাপ বাড়বে। 
এদিকে আমাদের বৈদেশিক ঋণের পরিমাণও বেড়েছে। ঋণের কিস্তি শোধ করার জন্য আমাদের পর্যাপ্ত পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ থাকা দরকার। তাই বাণিজ্যিক ব্যাঙ্গালোর কাছে পর্যাপ্ত পরিমান ডলার সরবরাহের আগে সে বিষয়টিও মাথায় রাখতে হবে। কেননা, এখন ডলার যদি কমে যায় তাহলে কিন্তু আবার রিজার্ভের উপরে চাপ বাড়বে। 
এদিকে, ডলারের দাম বাড়ার নেতিবাচক দিক হলো, পণ্য মূল্য বেড়ে যাওয়া। বাংলাদেশ ব্যাংক যদিও ডলারের দাম ১১০ টাকার মধ্যে রাখতে চেষ্টা অব্যাহত রাখছে। কিন্তু এই নিয়ন্ত্রণ কতদিন ধরে রাখতে পারবে সে বিষয়টিও মাথায় রাখতে হবে। এই পরিস্থিতিতে সঠিক নীতি কৌশল অবলম্বন করা প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেছেন বিশেষজ্ঞরা।

লেখক: জামাল উদ্দীন, সাংবাদিক।


Somoy Journal is new coming online based newspaper in Bangladesh. It's growing as a most reading and popular Bangladeshi and Bengali website in the world.

উপদেষ্টা সম্পাদক: প্রফেসর সৈয়দ আহসানুল আলম পারভেজ

যোগাযোগ:
এহসান টাওয়ার, লেন-১৬/১৭, পূর্বাচল রোড, উত্তর বাড্ডা, ঢাকা-১২১২, বাংলাদেশ
কর্পোরেট অফিস: ২২৯/ক, প্রগতি সরণি, কুড়িল, ঢাকা-১২২৯
ইমেইল: somoyjournal@gmail.com
নিউজরুম ই-মেইল : sjnewsdesk@gmail.com

কপিরাইট স্বত্ব ২০১৯-২০২৪ সময় জার্নাল